Friday , 26 May 2017
Home / Bangladesh / চোখ খুলে তাকিয়ে যাকে ডাকলেন খাদিজা, বিস্তারিত দেখুন

চোখ খুলে তাকিয়ে যাকে ডাকলেন খাদিজা, বিস্তারিত দেখুন

Loading...

স্কয়ার হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছাত্রলীগ নেতা বদরুলের চাপাতির কোপে আহত সিলেট সরকারি মহিলা কলেজের শিক্ষার্থী খাদিজা আক্তার নার্গিসের সঙ্গে গতকাল দেখা করেছেন স্বজনরা। খাদিজা তাদের দিকে তাকিয়ে কেঁদেছেন। হামলার পর খাদিজার অসুস্থ মা এই প্রথম সিলেট থেকে ঢাকায় এসে তাকে দেখেন। খাদিজার মা মনোয়ারা বেগম জানান, ডাক দিলে সাড়া দিয়েছে।

 ২ কোয়া রসুনে ১৮টা উপকার, জেনে নিয়ে সুস্থ থাকুন [পরীক্ষিত ও কার্যকরী]

চোখ খুলে তাকিয়েছে। মা বলে ডেকেছে। মনোয়ারা বলেন, ভয়াবহ এই হামলার পর এখনও আতঙ্ক কাটেনি মেয়েটির। খাদিজাকে জড়িয়ে ধরে সাহস দেয়ার চেষ্টা করেছি। বলেছি তোমাকে আর কেউ কিছু করতে পারবে না। তোমার কোনো ভয় নেই। কথা শুনে খাদিজা কান্না করতে করতে একবার আমাকে মা বলে ডেকেছে। তার বাবাকেও বাবা বলে ডেকেছে। কথা বলতে খুব কষ্ট হচ্ছে তার।

খাদিজার বাবা মাসুক মিয়া জানান, খাদিজার হাতে, মাথায় অনেক আঘাত। অস্ত্রোপচার হয়েছে। অসহ্য যন্ত্রণা নিয়ে মেয়েটি ধীরে ধীরে সুস্থ হয়ে উঠছে। তবে এখনও তার শরীরের বাম দিক অবস রয়েছে বলে জানান তিনি।

চিকিৎসকরা জানান, ধীরে ধীরে খাদিজার স্মৃতিশক্তি ফিরে আসছে। তার শরীরের বাম দিকে চেতনা ফেরানোর জন্য চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে। ধীরে ধীরে বাম দিকে চেতনা ফিরবে বলে জানান চিকিৎসকরা। স্কয়ার হাসপাতালে চিকিৎসাধীন খাদিজাকে পুডিং তরল করে খাওয়ানো হচ্ছে।

মনোয়ারা বেগম জানান, খাদিজা খুব শান্ত স্বভাবের। এই মেয়েকে কেউ এভাবে হামলা করবে তা কল্পনা করেননি তিনি। তিনি হামলাকারী বদরুল আলমের কঠোর শাস্তি দাবি করে বলেন, এভাবে যেন আর কাউকে কাঁদতে না হয়।

Loading...

আর কোনো মেয়ে যেন এরকম নির্মম হামলার শিকার না হয়। এজন্য বদরুলকে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দিতে হবে। তিনি খাদিজার সুস্থতার জন্য সকলের দোয়া চান।

১৯ নভেম্বর হতে ২৯ নভেম্বর পর্যন্ত সূর্য উঠবে না বলছেন নাসার বিজ্ঞানীরা

পরীক্ষা দিয়ে বাড়ি ফেরার পথে গত ৩ অক্টোবর সোমবার বিকেলে এমসি কলেজ ক্যাম্পাসে খাদিজাকে প্রকাশ্যে নির্মমভাবে কুপিয়ে আহত করে শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের শেষ বর্ষের শিক্ষার্থী বদরুল আলম।

সেখান থেকে ইমরান নামের এক ছাত্র তাকে গুরুতর আহত অবস্থায় সিলেট এম এ জি ওসমানী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যান।

হাসপাতালে ভর্তির পর সেখানে তার প্রথম দফায় অস্ত্রোপচারের পর অবস্থার অবনতি হলে রাতেই তাকে রাজধানীর স্কয়ার হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়।

মঙ্গলবার বিকেলে খাদিজার মাথায় অস্ত্রোপচার করেন চিকিৎসকরা। অস্ত্রোপচারের পরে তাকে নিবিড় পর্যবেক্ষণে রাখা হয়েছে।

এদিকে, ছাত্রলীগ নেতা বদরুলকে জনতা আটক করে পুলিশে সোপর্দ করেছে। আদালতে সে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছে।

Facebook Comments

Leave a Reply