Sunday , 26 March 2017
Home / Health Tips / পুরুষের চুল পড়া প্রতিরোধের উপায় সম্পর্কে কার্যকরী টিপস জেনে নিন

পুরুষের চুল পড়া প্রতিরোধের উপায় সম্পর্কে কার্যকরী টিপস জেনে নিন

Loading...

আজকাল অনেক পুরুষই চুল পড়ার সমস্যায় ভুগে থাকেন। নারীদের তুলনায় পুরুষদের চুল পড়ার প্রবণতা অনেক বেশি। প্রতিদিন ১০০ টি বা এর কম চুল পড়া স্বাভাবিক। তবে চুল পড়ার পরিমাণ এর চেয়ে বেশি হলে তা চিন্তার বিষয়।

যে দুটো জিনিসের জন্যই মেয়েরা পুরুষের জন্য পাগল হয় (ভিডিওসহ দেখুন)

3

সাধারণত বয়স বেড়ে গেলে চুল পড়ে। তবে এখন কম বয়সীদেরও চুল পড়ছে এবং এই প্রবণতা দিন দিন বাড়ছে। রাসায়নিক দ্রব্যের অতিরিক্ত ব্যবহার, মানসিক চাপ এবং দূষণই এর জন্যে দায়ি।

এছাড়া চুল পড়ার আরও কিছু কারণ রয়েছে যেমন- পুষ্টিকর খাবার না খাওয়া, হরমোনজনিত সমস্যা, মাথার ত্বকে সংক্রমণ ইত্যাদি। ঘরোয়া কিছু উপায়ে পুরুষের চুল পড়া প্রতিরোধ করা সম্ভব। এসব উপাদান ব্যবহারে নতুন চুলও গজাবে।

ভিটামিন বি৭ –

ভিটামিন বি৭ যা বায়োটিন নামে পরিচিত, চুল পড়া প্রতিরোধ করে। এই ভিটামিন আপনার চুলের গোড়া শক্ত রাখে। ডিম, বাদাম, দই, কলিজা ইত্যাদি খাবারে এই ভিটামিন রয়েছে। এছাড়া বায়োটিন ক্যাপসুলও খেতে পারেন।

প্রোটিন সমৃদ্ধ খাবার –

চুলের স্বাস্থ্য ভালো রাখতে এবং চুল পড়া প্রতিরোধ করতে প্রোটিন সমৃদ্ধ খাবার বেশি খেতে হবে। শিম, ডাল, মুরগির মাংস, দুধ, ডিম ইত্যাদি খাবারে প্রোটিন রয়েছে।

তেল দেয়া –

Loading...

চুলে নিয়মিত তেল দিতে হবে। চুল পড়া প্রতিরোধে এবং নতুন চুল গজাতে তিলের তেল খুবই কার্যকরী। তেল মাথার ত্বকে ঘষে ঘষে দিতে হবে। এতে মাথায় রক্ত সঞ্চালনও বাড়ে।

ডিমের প্যাক –

আধা কাপ দইয়ের সঙ্গে একটি ডিম মিশিয়ে পেস্ট তৈরি করে চুলের গোড়ায় লাগাতে পারেন। এটা শুধু চুল পড়া কমাবে না বরং খুশকি ও দূর করবে, যা চুল পড়ার অন্যতম কারণ।

পেঁয়াজের রস –

পেঁয়াজের রস নতুন চুল গজাতে সাহায্য করে এবং চুলকে মজবুত করে। তিনটি পেঁয়াজ অল্প পানিতে এক ঘণ্টা সেদ্ধ করুন। সেদ্ধ হয়ে গেলে চুলা থেকে নামিয়ে ঠাণ্ডা করুন। এরপর পেঁয়াজ সেদ্ধ পানি দিয়ে চুল ধুয়ে ফেলুন। চুল পড়া প্রতিরোধে ঘরোয়া পদ্ধতিগুলোর মধ্যে এটা সবচেয়ে কার্যকরী।

রসুনের পেস্ট –

কয়েকটা রসুন বেটে পেস্ট তৈরি করে নিন। চুলের গোড়ায় ভালোভাবে লাগান। এটা চুল পড়া বন্ধের পাশাপাশি নতুন চুল গজাতে সাহায্য করে।

সবুজ চা –

চুল পড়া বন্ধে সবুজ চা দিয়ে চুল ধুয়ে ফেলতে পারেন। ২০ মিনিট পর হালকা কোন শ্যাম্পু দিয়ে চুল ধুয়ে ফেলুন। এছাড়া চুল পড়া বন্ধে ধূমপান পরিহার করতে হবে। ধূমপান মাথায় রক্ত সঞ্চালন কমিয়ে দেয়। যার ফলে চুল পড়ে। সপ্তাহে দুই দিন চুল পরিষ্কার করতে হবে।

বেশি বেশি চুল ধোয়ার ফলে চুলে প্রাকৃতিকভাবে যে তেল থাকে তা শুকিয়ে যায়। পুরুষদের শ্যাম্পুতে রাসায়নিক দ্রব্য বেশি থাকে যা চুলের জন্যে ক্ষতিকর। চুল ধোয়ার জন্যে বেবি শ্যাম্পু ব্যবহার করতে পারেন।

আজকাল ছেলেরা প্রায়ই চুলে জেল ব্যবহার করে থাকেন যা চুলকে শক্ত করে ফেলে, এতে চুল ভেঙে যায়। এছাড়া এতে থাকে প্রচুর রাসায়নিক দ্রব্য। তাই চুল সুস্থ রাখতে জেল ব্যবহার করা যাবেনা।

কোন পুরুষ পরকীয়ায় জড়াবেন? বোঝা যাবে শরীরের এই জিনিসটি দেখে

Facebook Comments
loading...

Leave a Reply