Tuesday , 24 October 2017

বিদেশের যে আইনগুলি অবিলম্বে চালু হওয়া উচিত!

Loading...

বিদেশের যে আইনগুলি অবিলম্বে চালু হওয়া উচিত!

 

উন্নয়নশীল দেশ থেকে উন্নত হতে গেলে হয়তো এই আইনগুলি ভারতেও চালু করা উচিত বলে অনেকেই মনে করছেন। এর মধ্যে কয়েকটি আইন ভারতে পুরোপুরি বা আংশিক চালু আছে, কিন্তু তার কার্যকারিতা নিয়ে প্রশ্ন থেকেই যায়।

• সমকামী বিবাহ— ২০০১ সালে প্রথম আইনসিদ্ধ হয়েছিল নেদারল্যান্ডসে। এর পরে একাধিক দেশে সমকামী বিয়েতে আইনি স্বীকৃতি দিয়েছে। কিন্তু ভারত সেই পথে এখনও হাঁটেনি।

• বিয়ের পরে সম্মতি না নিয়ে শারীরিক সম্পর্ক তৈরি করতে চাইলে মালয়েশিয়া, ব্রাজিল, ইতালি, জাপান, সুইৎজারল্যান্ডের মতো দেশে তা ধর্ষণ হিসেবে গণ্য করা হয়। এর শাস্তি হিসেবে মৃত্যুদণ্ড দেওয়ার সংস্থান রয়েছে কোনও কোনও দেশে। ভারতে যদিও এমন কোনও আইন এখনও চালু হয়নি।

Loading...

• সুইৎজারল্যান্ডে স্বেচ্ছামৃত্যুকে আইনি স্বীকৃতি দিয়েছে সরকার। ভারত-সহ অনেক দেশই এই সিদ্ধান্ত এখনও নিয়ে উঠতে পারেনি।

• ভারতে জেলে বসেও নির্বাচনে লড়া যায়। অথচ সিঙ্গাপুরের মতো ছোট্ট দেশে এক বছর জেল খাটলে অথবা ফৌজদারী অপরাধে দোষী সাব্যস্ত ব্যক্তিদের নির্বাচনে লড়তে দেওয়া হয় না।

• দেহ ব্যবসা সব দেশেই হয়। কোথাও আইনি, কোথাও বেআইনি! যেমন ভারতে দেহ ব্যবসা বেআইনি। অথচ গোটা দেশে এই ব্যবসার সূত্রে চলছে নারী পাচারের মতো নানা বেআইনি কারবার। এদেশেও কি দেহ ব্যবসাকে আইনিসিদ্ধ করা উচিত নয়? এই প্রশ্ন দীর্ঘদিন ধরেই উঠছে।

• ফ্রান্সে কর্মক্ষেত্রে কাউকে ৩৫ ঘণ্টার বেশি কাজ করানো যায় না। শুধু তাই নয়, সন্ধে ছ’টার পরে অফিস থেকে ই-মেল অথবা ফোন এলেও চাইলে তা প্রত্যাখ্যান করতে পারেন কর্মী! এভাবেই আইনি পথে মানুষের ব্যক্তিগত এবং কর্মজীবনকে আলাদা করা হয়েছে ফ্রান্সে। এদেশে এমনটা হবে?

• অস্ট্রেলিয়া-সহ বেশ কিছু দেশে পোষ্য যদি রাস্তায় বেরিয়ে মলমূত্র ত্যাগ করে তাহলে তা পরিষ্কার করে দেওয়াটা পোষ্যের মালিকের দায়িত্ব। এই সংক্রান্ত আইন রয়েছে অস্ট্রেলিয়ায়।

• ভারতে শিশু শিক্ষার অধিকার রয়েছে। কিন্তু তার মান নিয়ে বড়সড় প্রশ্নও রয়েছে। চেক প্রজাতন্ত্রে অবশ্য সব স্তরের মানুষকেই সরকারি উদ্যোগে শিক্ষিত করার ব্যবস্থা রয়েছে। অন্তত কলেজের পাঠ পেরনো পর্যন্ত প্রত্যেককে সরকারি উদ্যোগে উন্নত শিক্ষা দেওয়ার ব্যবস্থা রয়েছে।

Facebook Comments

Leave a Reply