Saturday , 24 February 2018

১২৪ টাকায় নারী বিক্রি হয় ! বিস্তারিত দেখুন

Loading...

পৃথিবীর অনেক দেশেই দেহ ব্যবসা আইনত বৈধ, যদিও অনেক দেশেই একে বেআইনীও মনে করা হয়। তেমনই ভারতেও দেহব্যবসা অবৈধ। কিন্তু তা সত্ত্বেও সেদেশে বেশ রমরমিয়ে চলছে এই বেআইনী কারবার।

দেখুন রাতে কি করছে ঢাকার মেয়েরা। লজ্জাহীন মেয়ে এরা না দেখলে বুঝবেন না। ভিডিও দেখুন ১৮+ 

2-1

ডেইলি মেলের খবর অনুযায়ী, এশিয়ার সব থেকে বড় রেডলাইট এরিয়া ভারতেই রয়েছে। সেই জায়গায় নাম অনেকেই জানেন, কলকাতার সোনাগাছি।

এই এলাকাটা ঠিক যত না বড় তার থেকেও বড় এখানে বসবাসকারী মহিলাদের দুঃখের কাহিনী। এখানে প্রায় ১৪ হাজারেরও বেশি পতিতা বাস করেন।

সোনাগাছির অলিগলিতে পথ শিশুর ভিড়, মেকআপে ব্যস্ত যুবতী থেকে অন্দরে অপেক্ষারত রমণী এই এলাকায় হামেশাই চোখে পড়ে। এখানে বিভিন্ন বহুতল বাড়িতে দেহব্যবসার আসর বসে।

Your ads will be inserted here by

Easy Plugin for AdSense.

Please go to the plugin admin page to
Paste your ad code OR
Suppress this ad slot.

এখানে কেউ পেটের দায়ে শরীর বেচে আবার কাউকে জোর করে অন্ধকারে ঠেলে দেওয়া হয়। একবার কেউ এখানে ফেঁসে গেলে সহজে তার নিস্তার নেই।

কলকাতাকে আনন্দনগরী বলা হলেও গোটা শহরের অন্ধকার যেন এই এদো গলিতে। এখানকার মহিলাদের কাছে এটাই স্বর্গ। কিন্তু নিজেদের সন্তানদের নিয়ে বেশ উদ্বিগ্ন এরা। ছেলেমেয়েদের গায়ে যাতে কাদা না লাগে সেই চেষ্টাই করে চলেন এরা।

এমনিতে পতিতাপল্লী ও দেহব্যবসায়ীদের নিয়ে প্রচুর সিনেমা তৈরি হয়েছে। কিন্তু আপনি শুনলে আবাক হতেই পারে, সোনাগাছির জীবন নিয়েও সিনেমা তৈরি হয়েছে। ‘বর্ন ইন ব্রথেলস’ নামের সিনেমাটি অস্কারও পয়েছে।

এখানকার জীবন দুর্ভাগ্য শব্দটিকেও হার মানায়। যে বয়সে আমরা সমাজের নিয়ম-কানুন, শিখি সে বয়সে এখানকার মেয়েরা নিজের শরীর বিক্রি করতে শেখে।

১২ থেকে ১৭ বছরের নাবালিকারা অচেনা পুরুষের সঙ্গে রাত কাটাতে শেখে, তাদের মন জোগাতে শেখে। তার বদলে তারা পায় মাত্র ১২৪ টাকা।

এই এলাকায় যদিও বাইরের লোকের আনাগোনা নিষিদ্ধ। এমনকি সাংবাদিক বা ফটোগ্রাফারদেরও এলাকার ভিতরে ঢুকতে দেওয়া হয় না।

বলিউড অভিনেত্রীদের বিব্রতকর কিছু মুহূর্তের ভিডিও যা দেখলে অবাক হবেন

Facebook Comments

Leave a Reply